কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন; দলীয় মনোনয়ন পেতে প্রার্থীদের দৌড়ঝাপ শুরু

কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন নিয়ে জল্পনা কল্পনা শুরু হয়েছে কুমিল্লায়। কে হচ্ছেন দলীয় প্রার্থী তা নিয়ে তৃণমুলের নেতাকর্মীদের আলোচনা এখন সর্বত্র। এদিকে দলীয় হাইকমান্ডের সুনজর পেতে সম্ভাব্য প্রার্থীরা নিজেদেরকে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের নিকট উপস্থাপন

করছেন নানাভাবে।
১০জুলাই দেশের প্রাচীনতম পৌরসভা কুমিল্লাকে সিটি কর্পোরেশন হিসেবে ঘোষণা করা হয়। ১৮৬৪সালে কুমিল্লা পৌরসভার মর্যাদা লাভ করে।সিটি কর্পোরেশন ঘোষনার পর কুমিল্লার রাজনীতিতে নতুন সমীকরণ শুরু হয়। সিটি মেয়র হওয়ার আশায় সম্ভাব্য এমপি প্রার্থীরা এখন নিজ নিজ কর্মীদের নিয়ে সামাজিক ও রাজনৈতিক তৎপরতা শুরু করেছেন।
ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় রয়েছেন সদর আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য হাজী আ.ক.ম বাহাউদ্দিন বাহার, প্রবীন আওয়ামীলীগ নেতা ও কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক অধ্যক্ষ আফজল খান এডভোকেট ও আমেরিকান চেম্বার অব কমার্সের চেয়ারম্যান আফতাবুল ইসলাম মঞ্জু। জেলার অধিকাংশ সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ আফজল খান এর পক্ষে মত দিয়েছেন হাইকমান্ডের কাছে। সমপ্রতি ঢাকায় সদর আসনের বর্তমান এমপিকে বাদ দিয়ে কুমিল্লার এমপিদের এক সভায় বর্তমান এমপি হাজী বাহারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ করেন।
বিএনপির প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় রয়েছেন একাধিক প্রার্থী। দলীয় মনোনয়ন নিয়ে ত্রিমুখী লড়াই দলের তৃনমূলের কর্মীদের মাঝে হতাশা সৃষ্টি করছে। মেয়র প্রার্থী হিসেবে যারা আলোচনায় স্থান পেয়েছেন তারা হলেন, বিগত সংসদ নির্বাচনে সদর আসনের বিএনপির প্রার্থী ও কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক- হাজী আমিনুর রশিদ ইয়াছিন, কুমিল্লা -৯ নির্বাচনী এলাকার সাবেক সংসদ সদস্য মনিরুল হক চৌধুরী ও সদ্য বিদায়ী কুমিল্লা পৌরসভার চেয়ারম্যান মনিরুল হক সাক্কু। বিএনপির প্রার্থীতার দৌড়ে এ তিনজনই সমানতালে এগুচ্ছেন। মাঠ পর্যালোচনায় জানা যায়, বড় দুই দলের যেই প্রার্থী হন লড়াই হবে তাদের মাঝে
জাতীয় পার্টির প্রার্থী হিসেবে দলের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি এয়ার আহমেদ সেলিম এর নাম ঘোষনা করেন দলের চেয়ারম্যান হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদ। প্রায় ৬মাস পূর্বে কুমিল্লার এক জনসভায় এরশাদ এ ঘোষনা দেন। জামায়াত নির্বাচনে প্রার্থী দিবে কিনা তা নিয়ে সংশয় রয়েছে দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে তবে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের প্রার্থীতার চেয়ে তারা স্থানীয় সাবেক ছাত্রনেতাদের দিকেই আঙ্গুল ইশারা করছেন।
তবে নগরবাসীর প্রত্যাশা দলের হাইকমান্ডের সুদৃষ্টি কামনার পাশাপাশি প্রার্থীকে এমন হতে হবে যে, জলাবদ্ধতা ও জনদূভের্াগের এই সিটি কর্পোরেশনকে নতুন করে সাজাতে যোগ্যতা রাখবে।

সূত্রঃ কুমিল্লানিউজ২৪ | ২২ অক্টোবর ২০১১

This entry was posted in কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন, কুমিল্লানিউজ২৪. Bookmark the permalink.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s