আইভীর সমর্থনে সম্মিলিত নাগরিক পরিষদ গঠন

 আলোচিত মেয়র পদপ্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভীর পক্ষে প্রচারণার জন্য গঠিত হয়েছে সম্মিলিত নাগরিক পরিষদ।
গতকাল সোমবার চিকিৎসক, প্রকৌশলী, ছাত্র-জনতা, বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন এবং বাম নেতাদের সমন্বয়ে ১০১ সদস্যের এই পরিষদ গঠন করা হয়। আইভীর পক্ষে ভোট চাইতে এই পরিষদ নারায়ণগঞ্জের সাধারণ মানুষের কাছে যাবে। কমিটিতে আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতারা ছাড়াও সিপিবি, ওয়ার্কার্স পার্টি, সাম্যবাদী দল, ন্যাপ, গণতন্ত্রী পার্টি, জাসদসহ (ইনু) বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিরা আছেন।
কমিটির আহ্বায়ক করা হয়েছে সাবেক সাংসদ ও জেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক এস এম আকরামকে। সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রফিউর রাব্বি পরিষদের সদস্যসচিব।
শিশু-কিশোরদের সংগঠন খেলাঘরের কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক জহিরুল ইসলাম, শ্রুতি সাংস্কৃতিক একাডেমির সভাপতি আবদুর রহমান, জেলা উদীচীর সাবেক সভাপতি আনোয়ার হোসেন, প্রকৌশলী আনোয়ার হোসেন, চলচ্চিত্রনির্মাতা হাসান জাফরুল, পোশাকশ্রমিকদের নেতা হাফিজুল ইসলাম, শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, মহিলা পরিষদের কেন্দ্রীয় নেত্রী লক্ষ্মী চক্রবর্তী, সাবেক জাতীয় হকি খেলোয়াড় খাজা রহমতউল্লাহ, কবি রইস মুকুলও এই পরিষদে আছেন।
শামীমের পক্ষে কেন্দ্রীয় নেতারা: গতকালও বিভিন্ন নেতা শামীম ওসমানের পক্ষে ভোট চান। তাঁদের মধ্যে আছেন কাজী জাফরউল্লাহ, আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ, বাহাউদ্দিন নাছিম, মৃণাল কান্তি দাস, সুজিত রায় নন্দী প্রমুখ।
ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি লিয়াকত শিকদারের নেতৃত্বে একটি দলও আছে নারায়ণগঞ্জে। এ ছাড়া ছাত্রলীগের সভাপতি বদিউল আলম ও সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলমের নেতৃত্বে কাজ করছে ১৮টি দল।
শামীম ওসমান প্রথম আলোকে বলেন, ‘তৃণমূল নেতারা আমাকে আগেই সমর্থন দিয়েছেন। পরে কেন্দ্র আমাকে সমর্থন দেয়। এ কারণেই ঢাকা থেকে কেন্দ্রীয় নেতারা এসে আমার পক্ষে ভোট চাইছেন।’
তৈমুরের পক্ষেও কেন্দ্রীয় নেতারা: বিএনপি-সমর্থিত প্রার্থী তৈমুর আলমকে সমর্থন করলেও তাঁর পক্ষে কেন্দ্রীয় নেতারা এত দিন মাঠে ছিলেন না। তবে শনিবার বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে বৈঠকের পর এখন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা তৈমুর আলমের পক্ষে ভোট চাইতে নারায়ণগঞ্জে আসছেন।
তৈমুরের পক্ষে নির্বাচন পরিচালনা করতে একটি কমিটিও করা হয়েছে। কমিটির আহ্বায়ক সাবেক সাংসদ আবুল কালাম। কাল তৈমুরের পক্ষে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব আমানউল্লা আমান, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা এম এ মান্নান, নিতাই রায় চৌধুরী, সাংসদ শহীদ উদ্দীন চৌধুরী, গৌতম চক্রবর্তী, গিয়াসউদ্দিন আহমদ, সাংসদ হারুন-অর রশিদ, মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, নাজিমউদ্দিন আলম, খায়রুল কবির খোকন প্রমুখ নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে নারায়ণগঞ্জে এসেছেন।
ঢাকা মহানগর বিএনপির সদস্যসচিব আবদুস সালাম, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক সরফত আলী, জাসাসের সভাপতি এম এ মালেক, সাধারণ সম্পাদক মনির খানও এখন নারায়ণগঞ্জে।
তৈমুর আলম খন্দকার বলেন, ‘দলীয় চেয়ারপারসনের সঙ্গে কথা হয়েছে। আমার পক্ষে প্রচারণা চালাতে এখন থেকে প্রতিদিনই বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতারা নারায়ণগঞ্জে আসবেন।’
ভুয়া ভোটারের অভিযোগ তদন্ত দাবি: সেলিনা হায়াৎ আইভী অভিযোগ করেছেন, শহরের চাষাঢ়ার চাঁদমারী এলাকার একটি বস্তিতে এক হাজার ভুয়া ভোটার করা হয়েছে। এঁরা কেউ শহরের বাসিন্দা নন। ১২ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর চাষাঢ়ায় মোট ভোটার ছয় হাজার ৯৮৮। এর মধ্যে এক হাজার ভোটারকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। তাঁদের ঠিকানায় আমাদের কর্মীরা গিয়ে খোঁজ করেছেন। সেখানে এই ভোটারদের পাওয়া যায়নি। আমরা নির্বাচন কমিশনকে বিষয়টি খতিয়ে দেখার আবেদন জানিয়েছি। আমাদের কাছে এমন আরও অভিযোগ আসছে।’
তৈমুর আলম এই অভিযোগ সমর্থন করে বলেছেন, ‘আমাদের কাছেও এমন ভুয়া ভোটারের খবর আছে। অনেকেই এখন ভোটার হওয়ার জন্য আবেদন করছে। আমরা মনে করি, নির্বাচন কমিশনের বিষয়গুলো তদন্ত করা উচিত।’
তবে শামীম ওসমান বলেন, ‘২০০৮ সালে যে ভোটার তালিকা হয়েছে, তাতে কোনো ভুল আছে বলে আমার মনে হয় না। ভুয়া ভোটারের অভিযোগ তুলে আমার দিকে ইঙ্গিত করা হচ্ছে। অথচ ভোটার তালিকা তৈরির সময় আমি দেশেই ছিলাম না।’
এ বিষয়ে জানতে চাইলে রিটার্নিং কর্মকর্তা বিশ্বাস লুৎফর রহমান বলেন, ‘আমরা অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।’

সূত্রঃ প্রথম আলো | ২৫ অক্টোবর ২০১১

This entry was posted in প্রথম আলো. Bookmark the permalink.

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s